অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ছাত্রীদের স্পর্শকাতর অঙ্গে হাত দেয় দপ্তরী

নরসিংদীর পলাশে স্কুল দপ্তরীর বিরুদ্ধে একাধিক তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ওই দপ্তরীকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্কুল পরিচালনা কমিটি।

সরেজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, উপজেলার গজারিয়া ইউনিয়নের ১৩ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দপ্তরী ইসমাঈল হোসেন ওই স্কুল পড়ুয়া তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীদের অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে ক্লাসের ভেতরই ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে বিভিন্ন অশ্লীল কাজ করতো।

গত বুধবার ওই স্কুলের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া এক শিক্ষার্থীর পরিবার প্রধান শিক্ষিকা বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে স্কুল পরিচালনা কমিটি ও এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। পরে একে একে ওই দপ্তরীর বিরুদ্ধে আরও একাধিক ছাত্রীকে অশ্লীল ভিডিও দেখিয়ে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে বিভিন্ন অশ্লীল কাজ করার অভিযোগ উঠে আসে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার স্কুল পরিচালনা কমিটির সদস্যরা জরুরী মিটিং করে ওই দপ্তরীকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়।

এ বিষয়ে ১৩ নং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা কানিজ ফাতেমা লিনা জানান, স্কুল দপ্তরীর বিরুদ্ধে ছাত্রীদের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার বিষয়ে এ পর্যন্ত তিনটি পরিবার লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবগত করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে পলাশ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুমানা ইয়াসমিন জানান, ছাত্রীদের শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেওয়ার অভিযোগটির বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।