নেশার টাকা না পেয়ে স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যা

জানুয়ারি ০৫ ২০২১, ০৭:২৮

রাজশাহীর পুঠিয়ায় নেশার টাকা না পেয়ে ঘুমন্ত স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী ফিরোজ হোসেন (৩৫)। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতদের লাশ উদ্ধার করেছেন। এ ঘটনায় ঘাতক স্বামীকে ঢাকা থেকে আটক করা হয়েছে। সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে পুঠিয়া উপজেলার গোপালহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন পলি খাতুন (২৫) ও তাদের পাঁচ মাস বয়সী শিশু মেয়ে টুকটুকি।

আটককৃত ফিরোজ হোসেন ওই গ্রামের হাসিব আলীর ছেলে।

প্রতিবেশী ফারুক হোসেন বলেন, ‘কিছু দিন আগে বাসের সুপারভাইজার হিসেবে কাজ করার সময় একটি দুর্ঘটনায় ফিরোজের একটি পা কাটা পড়ে। এরপর তিনি সুস্থ হয়ে অটোভ্যান চালাতেন। একপর্যায়ে তিনি মাদকাসক্ত হয়ে পড়েন। পরে আটোভ্যানটি বিক্রি করে ওই টাকায় তিনি মাদক সেবন করেন। এ ঘটনায় তার স্ত্রী প্রতিবাদ করলে তাদের মধ্যে ঝগড়া-বিবাদ শুরু হয়। তারই সূত্র ধরে সোমবার রাতে ফিরোজ তার স্ত্রী ও মেয়েকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে ঢাকায় পালিয়ে যান। খবর পেয়ে থানা পুলিশ তাকে আটক করতে সক্ষম হয়।’

এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, রাতেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। পরে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। পাশাপাশি ঘটনার পর ওই রাতেই ঘাতক স্বামী ফিরোজ ঢাকায় পালিয়ে যান। আমরা প্রযুক্তির মাধ্যমে তাকে ঢাকা থেকে আটক করেছি। তবে এ ঘটনায় এখনো থানায় কোনো মামলা হয়নি। ভুক্তভোগীর পরিবারের লোকজন মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে আমরা ধারণা করছি নারী ও ওই শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হতে পারে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রামেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন এলে সঠিক তথ্য পাওয়া যাবে।’

Share Button