পরমাণু ইস্যু : যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ফের আলোচনায় বসতে চায় উ. কোরিয়া

পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আবারও আলোচনা শুরু করতে ইচ্ছুক উত্তর কোরিয়া। চলতি সেপ্টেম্বরের পরে তারা শীর্ষ দুই নেতার মুখোমুখি আলোচনায় বসতে চায়।

দেশটির ভাইস ফরেন মিনিস্টার চু সন-হুই জানিয়েছেন, উভয়পক্ষের সম্মত একটি পরিস্থিতিতে তারা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আবারও বিস্তর আলোচনায় বসতে ইচ্ছুক।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণে উত্তর কোরিয়ার প্রতি আলোচনা পুনরায় শুরু করার আহ্বান জানানোর পরই চু সন-হুই’র এমন বক্তব্য এসেছে।

যদিও চু সন-হুই’র এই বক্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পরই উত্তর কোরিয়া থেকে স্বল্প-পরিসরের দুটি ক্ষেপণাস্ত্র (প্রজেক্টাইল) উৎক্ষেপণ হয়েছে বলে খবর আছে। এছাড়া এটি উত্তর কোরিয়া থেকে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে একটি সিরিজ টেস্টের সর্বশেষ উৎক্ষেপণ।

পরে চু সন-হুই এও বলেন, আমি বিশ্বাস করি আগামী আলোচনায় যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে একটি বিকল্প পদ্ধতি আসবে। যা উভয়পক্ষের স্বার্থকে কার্যকর করবে এবং আমাদের কাছে গ্রহণযোগ্য হবে।

এর আগে গতবছর সিঙ্গাপুরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং উত্তর কোরিয়ার শীর্ষ নেতা কিম জং উনের মধ্যে প্রথম বৈঠক হয়েছিল; পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে। সেসময় আলোচনায় কিম জং উন কোরিয়া উপদ্বীপকে ‘সম্পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণ’ নিয়ে সম্মতও হয়েছিলেন বলে জানা যায়। তবে এটি কীভাবে বাস্তাবায়ন হবে, সে ব্যাপারে উভয়পক্ষ কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পরেনি। বলা চলে, পরবর্তীতে পুরো প্রক্রিয়াই ব্যর্থ হয়েছিল।

এরপর এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে দ্বিতীয় বৈঠকে বসেন শীর্ষ এই দুই নেতা। তখনও কোনো ফলপ্রসূ আলোচনায় হয়নি বলে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়।

কোনো ধরনের চুক্তি বা অর্জন ছাড়াই শেষ হয় দুই দিনব্যাপী এ বৈঠকও। উত্তর কোরিয়ার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা পুরোপুরি উঠিয়ে নিতে কিমের আহ্বান ট্রাম্প প্রত্যাখ্যান করায় বৈঠকটি ‘নিষ্ফল’ হয়েছে বলে মনে করা হয়।