প্রকাশিত হয়েছে: Sun, Dec 8th, 2019

বাবাকে হত্যার পর লাশ টুকরো টুকরো করল কন্যা

লাগাতার যৌন নির্যাতন করত বাবা। এই কারণে বয়সে ছোট প্রেমিককে সঙ্গে নিয়ে তাকে কুপিয়ে খুন করল ১৯ বছরের দত্তক কন্যা। শুধু তাই নয়, খুনের পর তার গোপনাঙ্গ কেটে নিয়ে লাশটি টুকরো টুকরো করে। তারপর একটি ব্যাগ ও সুটকেসের মধ্যে পুরে নদীতে ভাসিয়ে দেয়। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মহারাষ্ট্রের ভাকোলা এলাকায়। অভিযুক্ত ওই যুবতী ও তার কিশোর প্রেমিককে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ভাকোলার বসন্তকুঞ্জ এলাকার একটি বাড়িতে থাকত ৫৯ বছরের বেনেট রেবেলো। বিয়ে না করলেও একটি মেয়েকে দত্তক নিয়েছিল সে। কিন্তু, মেয়েটি কিশোরী হওয়ার পরে থেকেই বেনেট যৌন নির্যাতন করত বলে অভিযোগ। এই রাগে গত ২৭ নভেম্বর রাতে কুমারী আরাধ্যা জিতেন্দ্র পাটিল ওরফে রিয়া (১৯) নামে ওই যুবতী ১৬ বছরের প্রেমিককে নিয়ে বেনেটের উপর চড়াও হয়।

তাকে বাঁশ দিয়ে বেধড়ক মারধর করে। ছুরি দিয়ে কোপায়। তখনও বেঁচে ছিল বেনেট। তাই দেখে তার মুখে মশা মারার তেল ঢেলে দেয় রিয়া। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর গোটা শরীরটা পিস পিস করে কাটে। আর সেই টুকরোগুলি ব্যাগ ও সুটকেসে ভরে স্থানীয় একটি নদীতে ভাসিয়ে দেয়। সেই সুটকেস ও ব্যাগগুলি পুলিশের হাতে পরতেই তল্লাশি শুরু হয়। শনিবার ধরা পড়ে রিয়া ও তার প্রেমিক।

এপ্রসঙ্গে ওই যুবতী রিয়া জানায়, তার সঙ্গে ১৬ বছরের এক কিশোরের ভালবাসার সম্পর্ক ছিল। কিন্তু, তার সৎ বাবা সেই সম্পর্কে রাজি ছিল না। প্রথমদিকে সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসার জন্য চাপও দিয়েছিল। কিন্তু, তা শোনেনি রিয়া। এরপর থেকেই তার ওপর লাগাতার যৌন নির্যাতন করতে থাকে বেনেট। এই অবস্থার হাত থেকে মুক্তি পেতে বয়সে ছোট প্রেমিকের সঙ্গে যুক্তি করে সৎ বাবাকে খুন করে। সংবাদ প্রতিদিন।

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

বাবাকে হত্যার পর লাশ টুকরো টুকরো করল কন্যা