স্কুলছাত্রীকে উত্যক্তের প্রতিবাদ করায় লিসানকে খুন!

মাগুরায় রোববার দুপুরে সংঘটিত কলেজছাত্র লিসান খুনের ঘটনায় এক স্কুলছাত্রীকে উত্যক্ত করার প্রতিবাদের যোগসূত্র পেয়েছে সদর থানা পুলিশ। এ ঘটনায় লিসানের মূল হত্যাকারী সোহেলের এক সহযোগীকে রাতে আটক করা হয়েছে।

আটক রবিন (১৮) মাগুরা শহরের নিজনান্দুয়ালী এলাকার রেজাউল শেখের ছেলে। সে নিহত লিসানের সাথে মাগুরা সরকারি হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজের একাদশ শ্রেণীতে পড়ে।

মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম এ বিষয়ে জানান, মাগুরার সদর উপজেলার শিবরামপুর কলেজিয়েট স্কুলের অষ্টম শ্রেণীতে পড়ুয়া এক মেয়েকে উত্যক্ত করতো মাগুরা শহরের নিজনান্দুয়ালী এলাকার রবিন ও শামীম। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় লিসানের ওপর ক্ষুব্ধ হয় তার সহপাঠী রবিন ও শামীম। সেই সাথে লিসানকে মারার জন্য সোহেলকে ভাড়া করে তারা।

পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী শামীম ও রবিন আড্ডা দেবার কথা বলে লিসানকে কৌশলে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরা সরকারি কলেজ থেকে শিবরামপুরের মডার্ন মোড়ে নিয়ে আসে। সেখানে ধারালো ছুরি নিয়ে আগে থেকে ওৎ পেতে ছিল ভাড়াটিয়া খুনি সোহেল। লিসান মোটরসাইকেলযোগে মডার্ন মোড়ে আসামাত্রই সোহেল তার পেটে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। স্থানীয় জনগণ তাকে উদ্ধার করে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমে স্কুলছাত্রীকে উত্যক্ত করার যোগসূত্র পায়। একই সাথে রবীনকে আটক করে। আটক রবীন পুলিশের কাছে এ বিষয়ে স্বীকারোক্তি দিয়ে লিসান খুনের চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে। এছাড়া ওই স্কুল ছাত্রী উত্যক্ত করার বিষয়ে শামীম ও রবিনকে অভিযুক্ত করে পুলিশের কাছে জবানবন্দী দিয়েছে।